#113 Tristitia

She sat there, a lonely girl,
Looking for her mother’s lap
To lie down again,
Her childhood framed, hanging on
The wall, locking her in her wish to be left alone.

The moon hung low,
Not oblivious to her loneliness,
She too forfeited her smile
To feel solidarity, and the numbing pain.
The friendly giants too, stood resolutely desolate.

Those empty black eyes transfixed
Outside the windows random lights scattered
Loud thunders bespoke of grim days,
But, nothing ever stayed. Her wait prolonged,
With every new song she learnt.

The street light shone woefully
Lighting up a lonely stretch,
Her home locked, the bell not rung in days,
Creepers come to cover her windows
Just as her heart had sadness weaving a blanket.
*************

#108 গুরু, গম্ভীর, ঘটনা!

এই লক্ষীছাড়া কাব্য ফেলেছি ছেড়ে,
চৌকাঠ করেছি পার, ঘরের দরজা বন্ধ করেছি,
পথটাকে সঙ্গী করে, হয়ে যাযাবর,
প্রেমের ছন্দে লীন, ভাবে মত্ত-বিভোর,
হাসি দুর্বোধ কিন্তু এতেই আছে শান্তি আমার।

বয়স-কালে আরামকেদারায় বসে দেখেছি
ব্যাটা হতভাগা চাঁদটাও পূর্ণিমার রাতে একলা ঘোরে!
সুখ-দুঃখের গল্প ভাগ করে নেওয়ার মাঝে
ওই চাতালটাতে দুজনে বসে, একটু দীর্ঘশ্বাস,
আর মন খারাপের মাঝখানে সিগারেট-টাতে টান।

আকাশে বারবার তার পথ আটকে দাঁড়ায়
ওই ভট্টচাযদের বাড়ির নারকেল গাছ,
দুষ্টু বাতাসটা টিটকিরি মেরে ছুট্টে পালায়
ইউক্যালিপ্টাস গাছের পাতাগুলো সব দেখে হেসেই ফেলে,
প্রহর ঘুরলে চাঁদ বলে এবার তারও ঘুমোতে যাবার পালা।

আমার পথটাও বিশ্রাম চায় বাড়ির দোরগোড়ায় এসে
এত ঘুরিয়ে সেও আজ ক্লান্ত, পিঠ থেকে নামাতে চায় এবার,
কীর্তনের সুর ভেসে আসে দূর থেকে, পাখিদের কল্লোলের সাথে ডানায় চেপে,
মায়ার খেলার মাঝে ছায়ার লুকোচুরি,
মাথার পাকা সাদা চুলের গোছা নেড়ে আমিও বিজ্ঞ হবার ভান করি।

রাতটা শেষ হয়ে আসে, স্বপ্নের দেশ থেকে বাস্তবে এসে পড়তে হয় চিৎকারে,
ঘুম ভাঙলে মা বলে, “কিরে! অফিস যাবিনা আজ নাকি?”
আমি কাঁধে গামছা ফেলে বাথরুমের দিকে তাক করি,
রাতটা ছিল শান্তির, আমার নিজের মত করে কাটানো সময়,
শুধু এই দিনের বেলা যত রাজ্যের বিরক্তি এসে জীবনে হাজির হয়।
*************

#106 “Dream-ghost”

Windy it was, and the night continued
Carrying such a ghastly feeling to it,
Dream-catchers hanging off the leafless branches
Yet, around lurked terrifying dreams.

Shadows too did seem grossly unkind,
Leaping up from every corner to scare.
Just like the pitter-patter chicaning rain
The ever-smiling moon, nobbled, remained.

Even the bushes came to frighten
As did the unheard-of cries, dogs or monsters?
With every turn equally blind,
The path just going away awry.

She finds herself completely lost
Her fairytale friends don’t come to hold her hands,
Her elusive Prince disappointingly misses this chance too
To win his darling for ever. Maybe, his horse broke down?

Running up the stairs, forming in my head,
An equally strange razzmatazz story to console
The girl who woke up, wailing, finding herself on her bed,
Petrified and unstrung, in need of a hug.

I say “it’s fine” but she still weeps;
The smell still lingers, ground still wet since it rained.
As I tuck my daughter in, I wonder,
Is the real world any less cruel than her nightmarish bedtime?
*************

#105 Nor’wester

An early dusk’s sudden appearance,
Bringing invading clouds from distant horizons,
Unruly winds come out of hiding,
But the sun has not left altogether yet
And the village is not ready to fall asleep.

Absentmindedly the river flows on
With no visible hurry to reach anywhere,
Returning flocks of colourful birds with their merry chirpings,
A solitary cycle leans waiting against the old bent tree
Fishing rod to the side, by the bank his old master idles.

Cattle not ready to leave their field
While the herder-boy whistles an obscure tune,
Flashes of lightning do not scare them,
Eager in their freedom from daily monotony
Because a little rain unleashes a comforting fantasy.

The stars have gone missing from the sky
There would be no need for them this night.
With accompanying dances of rain, the wind will stay, it shall sing,
Regular scenes of daily life will fade, yet life wouldn’t stop,
Breaking free of chains, a change only a storm could bring.
*************

I also wanted to write the same poem in Bengali to see how it turns out:

এক অকাল সাঁঝের আগমন
একঝাঁক হানাদার মেঘ নিয়ে দিগন্ত থেকে
দমকা চঞ্চল হাওয়া বেরিয়েছে লুকোনো ছেড়ে
কিন্তু সূর্য যায়নি এখনো অস্তাচলে
গ্রামের এখনো সময় হয়নি ঘুমিয়ে পড়ার।

নদীটা বয়ে চলে আপন মনে
কোথাও পৌঁছবার তাড়া না রেখে
একদল রঙ-মাখা পাখি বাড়ি ফেরে আনন্দের গান নিয়ে
একলা সাইকেল অপেক্ষায় বয়সের ভারে নুয়ে পড়া গাছের গায়ে হেলান দিয়ে
তার বয়স্ক মালিক জিরোয় পাশে মাছ ধরার ছিপটা রেখে।

মাঠের গরু-ছাগল ফিরতে তৈরী নয়
রাখাল ছেলেটা শিষ্ দিয়ে যায় অজানা সুরে
বিদ্যুতের ঝলকও ভয় দেখাতে পারেনা তাদের
রোজকার বাঁধা-ধরা জীবনের থেকে স্বাধীনতার আশায়
কারণ একপশলা বৃষ্টিতে আছে মুক্তির অলীক আরাম।

আকাশের তারাগুলি হারিয়েছে
আজকের রাতে তাদের নেই যে স্থান।
থাকবে হওয়া, গাইবে গান, আর বৃষ্টির নাচের সঙ্গত,
থামবে না জীবনের গতি, শুধু বদলাবে রোজকার ছবি,
ঝড় আনবে পরিবর্তন, শিকল ভাঙ্গবে বন্দিত্বের।
*************

#102 Nearest but lost

Our usual bar on the ever so familiar street,
Mild scent coming across –
From the solitary magnolia tree,
Or maybe I just keep thinking of you.

The twinkling city lights seem so small,
Evening still hasn’t left fully, and night can’t come in,
Rained a while ago, just a touch of mellow,
The terrace is the perfect place to daydream.

Should I order my Gin Negroni?
Or do I choose your old favourite, Jim’s Bourbon?
I’ll spend some time thinking,
Maybe I’ll end up choosing the same thing.

We used to come here so often;
From the spring of our relationship,
Through the autumnal rains and scattered leaves.
Summer lasted a couple of weeks, eternal winter then.

Was it J’adore or Nearest but lost?
I remembered every other detail for years,
But your perfume, I don’t remember that now,
Hidden in those lost feelings, somewhere between you and I.
*************

#96 Silence

It just hurts a little to stare out,
So mellow, even the leaves,
That danced with the wind;
Everything has come to a stop,
All is now so quiet.

Going outside feels strange
Climbing down the stairs, but no more stumbles,
The screaming neighbour sleeps for a change
Barking dogs are caught up elsewhere,
Even the clocks wouldn’t make a sound.

While walking, the lights change,
Crossing feels so difficult
Since cars rush fast, but no honks!
What’s come to the world around,
Alive but in a noiseless limbo.

I find myself in front of your street again,
Our childhood games, returning from school,
Silent memories coming back,
Stuck in that loop, I remain,
Muted and cowering in apprehension.

Caught in the middle
Of this terrible scheming silence,
I long to hear you laugh,
I just can’t wait enough –
For one another day of being together.
*************

#91 রাজকন্যার জয় হোক

ক্ষমা করো, আমি নই মুকুটহীন রাজা!
অনেক হল এই ছায়ার সাথে যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা।

হেরেছ, সেই দিন যেদিন ভুলেছ যুদ্ধের কারণ,
মনকে জয় করার নামে করেছ যেদিন নিজেকে প্রমাণের পণ।

তুমি আর এই বৃষ্টির মাঝে খুঁজে ফিরোনা,
এ শহরের সহস্র ব্যাথার মত তারও স্থান বুকের মাঝের আস্তানায়।

আমি চিনিনা আমাকে আজও,
ভ্রমিত, আঁধারের পায়ে লুকায়িত – শায়িত এক দেহ মাত্র।

শুধু ছল-চাতুরীর বিদ্যায় সরিয়েছি যত বাঁধন ছিল,
খেলার নামে ভালোবাসাকে বন্দি করেছি অন্তরালে।

ভাঙা আর গড়ার মাঝে, অন্কের হিসেবের থেকে বহুদূর
তাও একই চাঁদের তলায় খেলার সাথী আছে তলোয়ার হাতে।

যদি আবার কোনোদিন ইচ্ছে হয় পর-জয়ের,
যেখানে হার নেই, দুঃখ নেই, নেই গ্লানি সেখানে।

তবে এসো এই মুকুটহীন রাজপুত্রের বারান্দায়,
যুদ্ধকে ভয় না পেয়ে জেতাব তোমাকেই এবার।

*************

#90 Pioggia forte di Sabato

The rain does not stop.
Scattered skeletons on the road
Left lying stenching of old memories.

Completely drenched,
No more chance of returning home tonight;
With very little refuge in complete despair.

Too tired to walk further.
The crazy river bellowing below,
Furious for reminiscences in polaroid.

Flashy whites, retreating neon lights,
Thunderstruck, talking to the self,
Standing in the dark – the old fool scowls.

Clouds too break out laughing
Hidden sneers at a fall so pathetic,
High and mighty curling by the sidewalk.

No way of swallowing words,
Those dreams have long since seen their sunsets
A permanent dark only stares ahead.

Long drawn out conversation continues,
Shifting blames to muttering curses:
The visible anxiety of a fragile male ego.

Clutching hard at remnant straws
Most of which this rain would wash away too,
But such nightmares find a way of coming back.

Grayed hair – crownless prince undead
Of all gifts gone – taken away, squandered with pride,
April seems just the start of many heartbreaks.
*************

#81 মন খারাপের চিঠি

আজকে একটা বিশেষ দিন। বিশেষ, কারণ এই দিনে পাঁচ বছর পূর্ণ হত। ভেবে রেখেছিলাম যে আজকের দিনটা ঘটা করে পালন করব, নতজানু হব, সারাজীবনের অঙ্গীকারটা সম্মান করব।
কিন্তু কিছু জিনিস আছে যা আমরা যত বেশি করে চাই তত আমাদের থেকে দূরে সরে যায়। জীবনের ওই ভালো থাকার ইচ্ছেগুলো মরীচিকাময়!

আজকের আমার মনের অবস্থাটা বড্ড শোচনীয় আর দুশ্চিন্তায় আচ্ছন্ন। তাই আজ একটা লেখা দিলাম, হয়তো নিজের ভার একটু কমানোর জন্য।

এটা লিখেছিলাম নাগপুর থেকে ফেরার পথে। ব্যাথা চেপে রাখার কষ্ট আর হেরে যাবার ভয় নিয়ে, সমস্ত স্বপ্নের ভূতেদের থেকে পালাবার জন্য। তখন বুঝেছি যে বাঁচার একটাই পথ, চোখ বুজে থাকা।

জানালার বাইরে তখন জলের ঝাপটা, প্লেন ছুটে চলেছে রানওয়ে ধরে, আকাশকে কাছে পেতে।

আর আমি?
– তখন অনেক দূরে, ফেলে আসা সময়ে, আর কখনো না হওয়া ভবিষ্যতের মাঝে আটকে।


বৃষ্টিটা আবার ভেজায়
দরজার বাইরে মাত্র কয়েক পা,
সিঁড়ি ধরে উঠি, মাথা নিচু করে
ভয় করে, হারিয়ে ফেলব সব
যেমন আগে হারিয়েছে একবার।

সেবার ছিলাম অনেক দূরে
তোমার ওপরে অনেক ভরসা করে
মনে ছিল তুমি পারবে রাখতে
ভালোবাসায় ভরে, কষ্ট ভুলে,
জীবনের অংশ ভেবে।

যখন এলাম ফিরে, শীতের রাতে
তোমার কান্না শুনে ভেঙেছে ঘুম
দেখি, নেই সব,
ভেসে গেছে এক বৃষ্টির জলে
তুমিও গেছ অনেক দূরে, অন্ধকারের পারে!

অনেক ভুল ছিল মাথার উপরে,
সমস্ত ঈর্ষা জ্বালিয়ে, যন্ত্রণা থেকে
ভালবেসেছিলাম নিজের মত করে,
সরিয়ে দেওয়া, এখনও একা,
থাকতে পারিনি তোমায় ছেড়ে।

সূর্য আজও দেখি, রাতের অস্তাচলে
গল্প সত্যি না হবার প্রতিশ্রুতি শুনে
তোমার প্রতিচ্ছবির আকর্ষন রুখে,
শুধু অনেক কিছুই মিলল না এ জীবনে
আমার আক্ষেপ বাঁধি দুচোখ বুজে।

বাতাস ছুঁয়ে, অনেকদিন পরে
এলাম মনের খোঁজ নিতে।
কেমন আছে সে একাকী, গভীরে তলিয়ে,
প্লেনের জানালার ধারে বসে
মেঘ দেখে, চোখের বৃষ্টিতে ভিজে?
*************

#74 Love Undead

I was madly in love with you
I was, I am still, I will be,
Because you taught me to love.

Before, it was a word,
Now it holds meaning
The feelings will stay with me.

Feelings are but burned marks
Etched in the heart
The clock ticks, I still breathe.

Even if things have changed,
Values diminished, feelings blocked,
I would live with the pictures I have.

Even if all the leaves fall in autumn and dry,
The tree bears pain and carries on living for another spring.
*************